রেইকি (প্রথমদিন)

12522940_483860088465727_5432501539154083235_n

12509445_483860118465724_3946235273161341046_n

 

যে কোন শারীরিক ও মানসিক ব্যাধি মুক্তিতে “রেইকি”-র গুরুত্ব অপরিসীম। “রেইকি”হল স্পর্শ চিকিৎসা।

রেইকি কোন ধর্মীয় দৈব বা ভৌতিক ক্রিয়াকলাপ নয়। এই পদ্ধতি কোন বিজ্ঞান বহির্ভূত শিক্ষাও নয়। ‘রেইকি’- শব্দটি জাপানি শব্দ। জাপানি গবেষক ‘মিকাও উসুই’ প্রাচীন বৌদ্ধ পুঁথি থেকে এই চিকিৎসা বিদ্যাকে পুনরাবিষ্কার করেন। তাই নামনুসারে এই চিকিৎসা পদ্ধতির নাম হয় প্রাকিতিক চিকিৎসা বা রেইকি।

প্রাণশক্তি প্রয়োগের মাধ্যমে রেইকি চিকিৎসা করা হয়। পৃথিবীর স উন্নত দেশগুলিতেই এখন এই (রেইকি) ধন্যাত্মক শক্তিকে চিকিৎসার কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে। কোন রকম পাশ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়াই এই পদ্ধতিতে যে শারীরিক ও মানসিক ব্যাধি মুক্তি সম্ভব। ‘রেইকি’ শেখার জন্য সর্বাগ্রে প্রয়োজন জানবার ও শেখবার ইচ্ছে, খোলা-মন ও দুটি হাত, মাত্র দু-দিনের প্রশিক্ষনে এই বিদ্যার প্রথম ডিগ্রী অর্জন করা সম্ভব।

টেনশন মুক্ত ও ব্যাধি মুক্ত জীবন লাভ করতে “রেইকি”-র গুরুত্ব কতটা- তা বিস্তারিত জানতে ‘একবিংশ’-র পাতায় চোখ রাখুন। রেইকি সম্পর্কিত তথ্য নিয়ে আমরা আবার আসছি পরের সপ্তাহে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *