দক্ষিণ ভারতের সমুদ্র সৈকত গুলি…

maple-beachদক্ষিণ ভারতের সমুদ্র সৈকত গুলি ভারতের  অন্যান্য ট্যুরিস্টস্পট গুলির থেকে এক আলাদা আকর্ষণ। চাক্ষুষ না করলে বর্ণনা করে বলা প্রায় এক কথায় অসম্ভব।

 

images (1)

তাই পাহাড়-পর্বত-জঙ্গল-নদী ছেড়ে, এবার একবিংশর ডেস্টিনেশন ‘সাউথ ইন্ডিয়ান বিচ’। ডেসটিনেশন সাউথ ইন্ডিয়ান বিচ প্রথম পর্বে আমরা দুটি সুমুদ্র সৈকতের ঠিকানা দেব। এই বিচ গুলিতে হানিমুন হোক, ফ্যামিলি ট্যুর হোক বা বন্ধুবান্ধব মিলে যাওয়া যায়। আমাদের দেশে ভৌগলিক আকার এমন যে সারা ভারতেই ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে একাধিক সমুদ্র সৈকত, কিন্তু দক্ষিণ ভারতের সমুদ্রসৈকতগুলির আবেদন ভ্রমণপ্রেমীদের কাছে একটু বেশিই। কাচের মতো স্বচ্ছ জল, সোনালি রঙের বালি বা পাথুরে ঢাকা তটভূমি আর মাঝেমধ্যে পাম গাছের শারী। চোখ ও শরীর-দু’টোর জন্যই পরম আরামের। চলুন না ঘুরে আসা যাক, কয়েকটা দিনের জন্য একটু শান্তিতে নিঃশ্বাস নিতে দক্ষিণমুখী।

mangalore-beach

মালপে : উদিপী শহরের আনাচে-কানাচে ছড়িয়ে  ছিটিয়ে আছে আরবসাগরের নীলচে বাহার। উদিপী থেকে হাত বাড়ানো দূরত্বে রয়েছে সোনাঝরা বালির ‘মালপে’ সমুদ্র সৈকত। সোনালি বালিতে আরবসাগর এখানে শান্ত। নারকেল আর ঝাউ গাছের শারী যেন দেয়াল তোলা ঘনত্ব। সমুদ্রের বুকে জল ক্রীড়া করার  সমস্ত আয়োজন রয়েছে এখানে। স্পিডবোট, প্যারাসেলিং, কী নেই এখানে! প্রিয়জনকে স্পিডবোটে চাপিয়ে ভেসে পড়তে পারেন আরবসাগরে বুকে। পাখির চোখে মালপের মাদকতায় মুগ্ধ হতে চাইলে অবশ্যই প্যারাসেলিং-এ কয়েক চক্কর কাটা যায়।

mangalore-beach-resort

সৈকতের প্রান্তরেখা সূর্যের নানা রঙের ছটায় মাতোয়ারা, শান্ত বিচের অনেকটা দূর পর্যন্ত বিস্তৃত ঝাউবনে বাতাসের মাতামাতি। প্রকৃতি আর প্রেমিকের সঙ্গে হারিয়ে যাওয়ার সেরা ঠিকানা ‘মালপে’ সৈকত। মাঝে মাঝেই মাছভাজার তীব্র গন্ধ নাকে আসে। নানান মাছের সম্ভার থেকে পছন্দের মাছভাজা খাওয়ার মজাটাই আলাদা! ফিরে এসে উদিপীর শ্রীকৃষ্ণের নাম-সংকীর্তন না দেখলে অনেক কিছুই অদেখা থেকে যাবে।

maxresdefault

কাপু : উদিপী থেকে ৩৭ কিলোমিটার দূরে মাঙ্গালোরগামী বাসে করে চলে আসতে হবে ‘কাপু’ মোড়ে। এবার অটো রিস্কা ধরে নিন বা গাড়ী ভাড়াও করতে পারেন। গ্রামের লাল মাটির রাস্তা ধরে অটো চলতে শুরু করবে। চলতে চলতে অটো বা গাড়ীতে বসেই দেখতে পাবেন লালমাটির রাস্তার ক্যানভাসে ফুটে উঠছে গ্রামজীবনের সরল ছবি। আর একটু এগোলেই  পিছনে গ্রাম ফেলে চলে আসবেন ‘কাপু সুমুদ্র সৈকতের’ কিনারে। হলফ করে বলছি যারা সমুদ্রপ্রেমী তাদের কাছে ‘কাপু’ এক অজানা অচেনা সৈকতপ্রান্ত।

malpemainimg

আরব সাগরের বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাসে জল কোথাও নীল, কোথাও সবুজ। যতদূর চোখ যায়, সোনালি বালির পাড়ে সবুজ নারকেলবীথি, মাঝে মাঝে ঝাউয়ের সমাবেশ, নীল আকাশে সিগালদের ওড়াওড়ি। গাছের ছায়ায় একটা গ্রাম্য রেস্তরাঁ, দেদার মাছ আর ভীষণ সস্তা। সম্প্রতি এখানেও ওয়াটার স্পোর্টসের নানান আয়োজন চালু হয়ে গেছে। দূরে সমুদ্রের বুকে জেগে আছে পতুগিজদের দুর্গ।

sam_1200

ভগ্নপ্রায় দুর্গ নিয়ে নানান কাহিনি-কিংবদন্তির ছড়াছড়ি। পাশের টিলায় কালো-সাদা একটা বাতিঘর। একদম দেরি না করে চলে আসুন।অন্য অভিজ্ঞতা নিয়ে ফিরবেন, বাজী ধরে বলছি।

 

banana-rides

কীভাবে যাবেন:

মালপে: কলকাতা থেকে বিমানে অথবা ট্রেনে মাঙ্গালোর। মাঙ্গালোর থেকে গাড়িতে বা বাসে চলে আসা যায় ৬০ কিলোমিটার দূরের উদিপীতে। উদিপী থেকে মালপে বিচ মাত্র ৭ কিলোমিটার, বাসে বা অটোতে চলুন। উদিপী থেকে কাপু আসতে হলে গাড়ি বা বাসে চলে আসা যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *