“বুঝে সুগন্ধি ব্যবহার করুন”

IMG_4995শোনা যায় ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান ক্রিকেটার ভিভিয়ান রিচাড হোটেল থেকে খেলার মাঠে যাচ্ছিলেন,মাঝ পথে হটাত খেয়াল পড়ে পারফিউম আনতে ভুলে গেছেন।মাঝ রাস্তা থেকে গাড়ি ঘুরিয়ে আবার হোটেলে ফিরে যান পারফিউম আনতে।আবার অনেক বিখ্যাত মানুষ আছেন যারা রাতে পারফিউম না মেখে শুতে যেতে পারেন না।এমনও আছেন যারা পারফিউম ছাড়া যে জীবন চলে তা ভাবতেই পারেন না।নবম খ্রিস্টাব্দের আরবীয় কেমিস্ট আল কিন্দাসের লেখা পারফিউমের ওপর বই “বুক অব দ্য কেমিস্ট্রি অব পারফিউম অ্যান্ড ডিসটিলেশনস” বইটি পড়ার পর যেমন অবাক হয়েছিলাম তেমনি তথ্যসমৃদ্ধ।মোগলরা খুব সুগন্ধি পছন্দ করতেন।আলেকজান্ডার পারস্য থেকে গ্রিসে সুগন্ধ তৈরির কৌশল পাচার করেছিলেন।তবে মিসরীয়রাই প্রথম লতাগুল্মের নির্যাস থেকে সুগন্ধি তৈরি করেছিলেন।প্রাণিজ চর্বি থেকেও নাকি তারা সুগন্ধি মলম বানিয়েছিল।বলা হয় গোলাপ থেকে সুগন্ধি তৈরি করেন ইবনে সিনা।ল্যাটিন শব্দ পারফিউমের অর্থ ধোঁয়া।এতো গেল প্রাকৃতিক সুগন্ধি তৈরির কথা,কৃত্রিম সুগন্ধির সূচনা হয় ঊনবিংশ শতাব্দীর শেষ দিকে।দ্বাদশ শতাব্দীতে এসে সুগন্ধি বোতলজাত এবং বাজারজাত হতে থাকে।ব্রিটিশরা ভারতে যে ‘বিলেতি এসেন্স’ নিয়ে এসেছিল সেগুলো সব কৃত্রিম সুগন্ধি যদিও আধুনিক সুগন্ধি শিল্পের অনেকটা ফরাসিদের দখলে।পারফিউম দু রকমের-একটি শরীরে ব্যবহারের জন্য অন্যটি পোশাকে।

এখন কোমরের জোর অনুপাতে বাজারে নানান পারফিউম পাওয়া যায় যেমন ভার্সাচি, গুচি, ডলচে অ্যান্ড গাবানা, ডি অ্যান্ড জি, মেরিজ পারফিউম, রয়েল মেরিজ, ডানহিল, লাঙ্ট, ডিস্কোয়ার্ড, ওডি অ্যাপারেল, ওয়ান ম্যান শো, হুগো বস, জাগুয়ার, কেলভিন ক্লাইন, মেস্কি ইত্যাদি। এগুলোর দাম দুই হাজার টাকা থেকে শুরু হয়ে ৪০ হাজার টাকায় ঠেকে।লাখ টাকা অবধিও যায়!

কোন ঋতুতে কেমনঃ গরমের সময় চিটচিটে আবহাওয়া তাই একটু বেশি গাঢ় পারফিউম ব্যবহার করুন তাহলে গন্ধ টিকবে অনেকক্ষণ।শীতকালে হালকা সুবাসের সুগন্ধিই উপযুক্ত এবং গন্ধ টিকে থাকে অনেকক্ষণ।

ব্যবহারবিধিঃ পারফিউম ব্যবহার করার সবচেয়ে উপযুক্ত সময় স্নানের পর।শরীরের যেসব স্থানে আপনি পারফিউম ব্যবহার করবেন সেই স্থানগুলো ভেজা ভেজা থাকলে ভালো।শরীরের যে স্থানগুলোতে রক্ত চলাচল বেশি হয় সেখানেই পারফিউম লাগান।যেমন-গলা, হাতের কবজি, কানের পেছনে, বুকে, হাতের কনুই, হাঁটুর পেছন দিকে এবং লাগানোর পর স্বাভাবিকভাবে শুকোতে দিন।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *