তাড়াতাড়ি ঘুম থেকে ওঠার সহজ উপায় জেনে নিন।

3যাদের দীর্ঘদিন ধরে সকালে দেরি করে ঘুম থেকে ওঠার অভ্যেস তাদের তাড়াতাড়ি ঘুম থেকে ওঠা কতোটা কষ্টকর তা আমরা সবাই জানি।সকালে দেরি করে ঘুম থেকে ওঠা যতটা স্বাস্থ্যের জন্য খারাপ, ঠিক ততোটাই সারা দিনের মানসিক প্রশান্তির জন্য খারাপ। তাই সকালে জলদি ওঠার অভ্যাস করা সকলের জন্য অতন্ত্য জরুরী।ভোরে ওঠার কষ্টকর অভ্যাসকে সহজ করার বেশ কিছু ভালো উপায় আছে। আসুন জেনে নি উপায়গুলি কি।

ঘুমের সময় ঠিক রাখুনঃ
যাদের রাতে দেরি করে ঘুমাতে যাওয়ার অভ্যাস তাদের প্রথমে এই অভ্যাসটি দূর করতে হবে। কারণ রাতে দেরি করে ঘুমোতে গেলে ঘুম পুরো হয় না বলে ভোরে উঠা সম্ভব হয় না। আবার একেক দিন একেক সময় রাতে ঘুমোতে গেলে ঘুমের পরিমাণ ও সময় ওলট পালট হয়ে একটি বদ অভ্যাসের সৃষ্টি হয়। তাই চেষ্টা করুন রাতে একটি নির্দিষ্ট সময় ঘুমোতে যাওয়ার।

অ্যালার্ম ঘড়ি বিছানা থেকে দূরে রাখুনঃ
অনেকেই আছেন ভোরে ঘুম থেকে ওঠার জন্য ঘড়িতে কিংবা মোবাইল ফোনে অ্যালার্ম দিয়ে ঘুমাতে যান।প্রতিদিনই অ্যালার্ম বাজার সাথে সাথে হাতের নাগালে পেয়ে অ্যালার্ম বন্ধ করে আবার ঘুমিয়ে পড়েন।এই সমস্যা দূর করতে আপনাকে একটু কষ্ট করে অ্যালার্ম ঘড়িটা বিছানা থেকে দূরে রাখুন।যাতে আপনাকে সকালে অ্যালার্ম বন্ধ করার জন্য বিছানা থেকে উঠে যেতে হয়।বিছানা থেকে ওঠা আপনার ঘুম দূর করতে সাহায্য করবে।

ঘরে ভোরের আলো ঢোকার ব্যবস্থা করুনঃ
ভোরের আলো ঘরে ঢোকার ব্যবস্থা করুন।বিছানা সরাসরি জানালার পাশে রাখার চেষ্টা করুন তাহলে সকালের আলো আপনার ঘুম ভাঙতে সাহায্য করে।
জরুরী কিছু প্ল্যান করুন সকালের জন্যঃ
অনেকেই আছেন দরকার না হলে ভোরে ঘুম থেকে উঠেন না।তাদের ভোরে উঠা অভ্যাস করার জন্য একটি সহজ উপায় আছে। ভোরের দিকে কোনো জরুরী কাজ করার প্ল্যান করুন।কাজটির জন্য হলেও ঘুম থেকে উঠতে কষ্ট একটু কম হবে আর এভাবে কিছুদিন নিয়মিত ভোরে উঠতে পারলে তা আপনা আপনিই অভ্যাসে পরিনত হবে।

অনিদ্রারোগ দূর করুনঃ
অনেকেই রাতে দেরি করে ঘুমানোর অভ্যাসটির কারনে অনিদ্রারোগে ভুগে থাকেন। এই রোগটি দূর করতে হবে। অনিদ্রারোগটি প্রাথমিক পর্যায়ের হলে হালকা আলোয় কিংবা অন্ধকার ঘরে ঘুমুতে চেষ্টা করুন অথবা বই পড়ার অভ্যাস করুন বিছানায় শুয়ে। আর অনিদ্রা বেশী হলে ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করে এই রোগটি অতি সত্বর দূর করুন।

ব্যায়ামের মাধ্যমে শরীরে ক্লান্তি আনুনঃ
অনেকেই আছেন যারা সকালে উঠতে চান কিন্তু রাতে ঘুমুতে পারেন না বলে সকালে ঘুম থেকে উঠতে দেরি হয়।ফলে অন্যান্য অনেক কাজে দেরি হয়।ঘুম আসলে তখনই আসে যখন শরীরে ক্লান্তি থাকে।সকালে ব্যায়াম করলে দুটি উপকার পাবেন(১) সকালের ঘুম ঘুম ভাব দূর হয়(২)শরীর পুরো দিনের কাজ করার জন্য ক্ষমতা অর্জন করে।রাতে শরীরে ক্লান্তি আনতে সাহায্য করে।তাই ব্যায়াম করুন ও ভোরে উঠার অভ্যাস করুন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *