Nije Hasun..Aporkeo Hasan.

is (2)

 

 

 

 

 

রতন দৌড় দিয়ে ডাক্তারের কাছে গিয়ে বলল–
রতন : ডাক্তার বাবু তাড়াতাড়ি চলুন, আমার বাচ্চা হবে, সরি আমার বউয়ের বাচ্চাহবে।
ডাক্তার : (একটি টুল বক্স হাতে দিয়ে) চল আমার মোটর সাইকেলের পেছনে বোস।
রতনের বাড়ীতে এসে ডাক্তার টুল বক্সটি নিয়ে ঘরের মধ্যে ঢুকলেন এবং রতনকে বাইরে থাকতে বললেন- ১০ মিনিট পর দরজা খুলতেই

ড : তোর এখানে ছেনি আছে? ছেনি দে।

র : ডাক্তার সাব ছেনি কি করবেন? 

ড: তোর বউকে যদি বাঁচাতে চাস তবে ছেনি নিয়ে আয়।
কি আর করার আছে কোন রকম খুজে একটি পুরনো ছেনি এনে দিল
১৫ মিনিট পর ডাক্তার বাবু ঘামে চুপচুপে হয়ে দরজা খুললে —
র : ডাক্তার বাবু , ডাক্তার বাবু আমার বউয়ের কি হলো?

is (1)

ড : তোর এখানে হাতুড়ী আছে? হাতুড়ী !!
র : ডাক্তার বাবু হাতুড়ী কি করবেন?
ড: তোর বউকে যদি বাঁচাতে চাস তবে হাতুড়ি নিয়ে আয়।
কি আর করার আছে, রতন একটা হাতুড়ীএনে দিল। ডাক্তার হাতুড়ী নিয়ে দরজা লাগিয়ে দিলেন। ২০ মিনিট পর ডাক্তার বাবু ঘামে ভেজা শরীর, অর্ধেক ছেঁড়া শার্ট পরা অবস্তায় দরজা খুলে বের হলেন, বললেন-
ড : তোর এখানে করাত আছে? করাত!!
র : ডাক্তার বাবু আমার বউয়ের কি হলো? কি অবস্হা?
ড: কিছু হয়নি। করাত লাগবে।
র: ধুর শালা তুমি একটা ফালতু ডাক্তার। একবার ছেনি চাও, একবার হাতুড়ী আবার করাত চাইছ। বাচ্ছা হওয়াতে এসব লাগে নাকি?। কি হবে এসব দিয়ে?
ড: দেখ রতন বেকার উত্তেজিত হচ্ছ, আমি যে কাঠের বাক্সটি এনেছিলাম, তার চাবি খুজেপাচ্ছি না। তাই বাক্সটি এখনোও ভাঁঙ্গতে পারিনি।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *