নিজে হাঁসুন, অপরকেও হাঁসান- ‘বিশ্বাস গিন্নির পাখি কেনা’

7b1658a876762ee8b32a52740b806282বিশ্বাস গিন্নি পাখি কিনতে গিয়েছে।

👩‍🦰:এক ঝাঁক পাখির মধ্যে থেকে, ‘আচ্ছা! এই পাখিটার কী দাম?’

🧟‍♂পাখি বিক্রেতা বলল : ‘৭০০ টাকা।’

👩‍🦰: বিশ্বাস গিন্নি-এত দাম কেন?’

🧟‍♂পাখি বিক্রেতা : ‘এই পাখিটা আপনি যা বলবেন হুবহু সেই কথা বলতে পারে।’

👩‍🦰 :বিশ্বাস গিন্নি- ‘কম দামের কোন কথা বলা পাখি নেই?’

🧟‍♂পাখি বিক্রেতা : ‘হ্যাঁ ! ঐ যে এক ধারে যেটা রাখা আছে। ওটা নিয়ে যেতে পারেন, দাম মাত্র ২০০ টাকা।’

👩‍🦰 বিশ্বাস গিন্নি- ‘কথা বলতে পারে তো?’

🧟‍♂পাখি বিক্রেতা : ‘আপনি যা খুশি জিজ্ঞেস করুন। ফট করে সেটা বলে দেবে।’

👩‍🦰 বিশ্বাস গিন্নি পাখির সাথে কথা বলে বেজায় খুশি। টাকা মিটিয়ে দিয়ে বলল :
‘দাদা, একটা কথা জিজ্ঞেস করব? এই পাখিটা এত ভাল কথা বলে, তাও এর দাম অন্য পাখিদের চেয়ে কম কেন?’

🧟‍♂পাখি বিক্রেতা : ‘আসলে ম্যাডাম এই পাখিটা ওই খারাপ পাড়ার মেয়ে-মানুষটার বাড়িতে ছিল। তাই একে কেউ কিনতে চায় না।’

👩‍🦰 :বিশ্বাস গিন্নি- ‘ও এই ব্যাপার! আমরা অনেক উদার মনের মানুষ, এতে আমাদের কোনও সমস্যা নেই।’

এই বলে বিশ্বাস গিন্নি পাখি নিয়ে বাড়ি ফিরল। সন্ধ্যার সময় বাড়ির কর্তা কাজ থেকে ফিরতেই বিশ্বাস গিন্নি খুশি মনে কর্তাকে পাখির কাছে নিয়ে গেল পরিচয় করানোর জন্য।

🦜পাখিটা তখন কর্তাকে দেখেই বলে উঠল– ‘কি রে, তুই এই বাড়িতেও আসিস!’

পরের কাহিনী! সে তো ইতিহাস

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *