ফ্রিল্যান্সিং বা মুক্তপেশাকে বেছে নিতে পারেন আজকের তরুন-তরুণীরা।

brevard-county-information-technologyস্বাধীন ভাবে আউটসোর্সিং এর কাজ করাই ‘ফ্রিল্যান্সিং বা মুক্তপেশা’। আজকাল ফ্রিল্যান্সিং এর মাধ্যমে আয়ের এক বড় বাজার তৈরি হয়েছে। উদ্যমী ও পরিশ্রমী তরুণ তরুণীরা ফ্রিল্যান্সিং এর মাধ্যমে অনলাইনে প্রচুর অর্থ উপার্জন করতে পারেন। তবে ফ্রিল্যান্সিং এর মাধ্যমে রোজগারের প্রথম শর্ত হল কঠিন পরিশ্রম, কাজকরার মানসিকতা এবং দক্ষতা।এই গুণ গুলি থাকলে সঠিক দিকনির্দেশনার মাধ্যমে খুলে যেতে পারে আয়ের পথ।দরকার একটি নিজের কম্পিউটার এবং  ইন্টারনেটের সংযোগ। অনলাইনে বিভিন্ন ধরনের কাজ পাওয়া যায়, আর সেই কাজগুলি স্বাধীনভাবে বাড়িতে বসে করাই  ফ্রিল্যান্সিং বা মুক্তপেশা। যারা এই কাজগুলি করেন তাদের বলা হয় ফ্রিল্যান্সার।

670px-Start-a-Career-in-Information-Technology-Step-1

ফ্রিল্যান্সিং এর মাধ্যমে আয়ের ক্ষেত্রে অনেকগুলি সুবিধা আছে। যেমন, বাস্তব জীবনে অধিকাংশ কাজের জন্য সময়মতো অফিসে যেতে হয়। এ ছাড়া এই সমস্ত কাজের জন্য শিক্ষা এবং অভিজ্ঞতা সম্বন্ধীয় সর্টিফিকেটের প্রয়োজন হয়। কিন্তু ফ্রিল্যান্সিং  কাজের  জন্য কোনো সার্টিফিকেটের প্রয়োজন হয় না, দক্ষতা এবং পরিশ্রম করার মনসিকতা থাকলেই চলবে। ফ্রিল্যান্সিং  কাজের জন্য কোনো অফিসেরও দরকার পড়ে না, বাড়িতা বসেই কাজগুলি করা যায়। তাই বাড়ির মেয়েরা বা গৃহবধূরা অনায়াসে কাজ গুলি করতে পারেন।

aid274318-728px-Start-a-Career-in-Information-Technology-Step-3

কি ধরনের কাজ পাবেন অনলাইনে:

অনলাইনে কাজের অভাব নেই। যেমন- ‘ডাটা এন্ট্রির’ কাজ, ‘ফোটো এডিটিং’, ‘গ্রাফিক ডিজাইনিং’,’লোগো ডিজাইনিং’, ‘স্ক্রিপ্ট রাইটিং’,’ই-বুক বিল্ডিং’,’ট্রান্সিলেশন’,’ওয়েব ডিজাইনিং’, ‘ওয়েব ডেভেলপমেন্ট’, ‘এস ই ও’ এর কাজ, ‘ভার্চুয়েল অ্যাসিস্ট্যান্ট’ এর কাজ, আরো কত কি।

MG_87691

কাজ গুলি কোথায় কিভাবে পাওয়া যায়ঃ

অনলাইনে কাজ পাওয়ার জন্য আমাদের বাইরে ছোটা ছুটির প্রয়োজন পড়ে না। বাড়িতে বসেই কাজের সন্ধান চালিয়ে যেতে পারি। চাকরিদাতা বা ক্লায়েন্টরা তাদের কাজের বিজ্ঞাপন অনলাইনে কতগুলি সাইটে প্রকাশ করেন, যেগুলিকে বলা হয় অনলাইন মার্কেটপ্লেস। এই মার্কেটপ্লেস গুলি হল মূলত কতগুলি ওয়েব সাইট। যেমন – upwork.com,   elance.com,   freelance.com,   freelancer.in  peopleperhour,  ইত্যাদি। ফ্রিল্যান্সার বা চাকরি প্রার্থীরা এই মার্কেটপ্লেসের বিজ্ঞাপন দেখে কাজের জন্য আবেদন করতে হবে।

এই মার্কেটপ্লেস সাইটগুলিতে দুই ধরনের অ্যাকাউন্ট খোলা যায়।একটি হল ফ্রিল্যান্সার বা ওয়ার্কার অ্যাকাউন্ট এবং অন্যটি হল বায়ার বা ক্লায়েন্ট অ্যাকাউন্ট। বায়ার বা ক্লায়েন্টরা কাজ দিয়ে থাকেন এবং ফ্রিল্যান্সাররা সেই কাজ করেন। মার্কেটপ্লেস গুলি ফ্রিল্যান্সারদের কাজের সন্ধান দেওয়ার সঙ্গে ফ্রিল্যান্সারদের পেমেন্টের ব্যাপারেও নিরাপত্তা দেয়।

এই ধরনের ফ্রিল্যান্সিং job এর জন্য কি করতে হবে?

ফ্রিল্যান্সিং কাজ করার জন্য আপনাকে প্রথমেই কোনো বিশ্বস্ত মার্কেটপ্লেসে নাম নথিভুক্ত  করতে হবে। এবং আপনি কি কি কাজ জানেন সেই তথ্য দিয়ে নিজের প্রফাইল তৈরী করতে হবে। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই এই নথিভূক্তিকরন বিন্যমূল্যেই হয়। এর পর প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে প্রোফাইলটিকে সাইট কর্তৃপক্ষের দ্বারা approve করিয়ে নিতে হয়। প্রোফাইল approve হয়ে গেলেই কাজের জন্য আবেদন জানানো যায়।

আরও বিস্তারিত জানতে আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেনঃmedia.ekabinsha@gmail.com

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *