সংবিধানের ৭০তম বর্ষপুর্তিতে বাঙালির অবদান।

EE58FCFF-8135-47F9-8696-AEF51D30721F_cx0_cy17_cw0_w408_r1_sরবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ভারতের জাতীয় সঙ্গীতের রচয়িতা বলে বাঙালি গর্ব করে। কিন্তু ভারতের সংবিধান রচনায় বাঙালির অবদান সমানভাবে রয়েছে। আজ ভারতের সংবিধানের ৭০তম  বর্ষপুর্তিতে আসুন, সেই সব বাঙালির অবদানকে স্মরন করি।

ভারতীয় সংবিধানের মূল পাণ্ডুলিপিটি কিন্তু একটি হাতেলেখা ও হাতেআঁকা বই। ঠিক যেমন পুরাকালে পুঁথি তৈরি করা হতো। বইটির প্রধান অলংকরণ করেছিলেন বাঙালি চিত্রশিল্পী, নন্দলাল বসু। সংবিধানটি আগাগোড়া হাতে লিখেছিলেন সুদক্ষ লিপিকর প্রেমবিহারী নারায়ণ রায়জাদা। সংবিধানের প্রত‍্যেকটি পাতার নীচে বাঁদিকে তাঁর স্বাক্ষর করা আছে। আর পাতাগুলির ওপরের দিকে রয়েছে অসামান্য সব ছবি।

জওহরলাল নেহরুর ইচ্ছে ও অনুরোধে শিল্পাচার্য নন্দলাল বসু ভারতীয় সংবিধানের জন্য মোট বাইশটি ছবি আঁকেন যা সংবিধানের পাতায় পাতায় রয়েছে। শান্তিনিকেতনের কলাভবনের কয়েকজন ছাত্র সমানতালে নন্দলাল বসুকে এই কাজে সহযোগিতা করে।

নন্দলালের অনবদ্য চিত্রশৈলীতে সংবিধানের পৃষ্ঠাগুলিতে ফুটে উঠেছে মহেঞ্জোদারোর সিলমোহর, রামায়ণ, মহাভারত, গুরুকূল শিক্ষা, বুদ্ধের জীবন ও সম্রাট অশোকের বৌদ্ধধর্ম-প্রচার, মহাবীরের কথা, গুপ্তযুগ, বিক্রমাদিত্যের সভা, সম্রাট আকবর ও মুঘল স্থাপত্য, শিবাজি, গুরুগোবিন্দ সিং, রানি লক্ষ্মীবাই, টিপু সুলতান, গান্ধীজির আন্দোলন, নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু ও আজাদ হিন্দ ফৌজের লড়াই সহ ভারতের পাহাড়, সমুদ্র ও মরুভূমির বিচিত্র সৌন্দর্যের রূপ। সবমিলিয়ে সংবিধানের অলংকরণ যেন ভারতের চিত্রিত ইতিহাস ও ভূগোলকথা।

শুধু যে ইচ্ছেমতো ছবি এঁকে গেছেন নন্দলাল তা কিন্তু নয়। সংবিধানের বিষয় ও অনুচ্ছেদ অনুযায়ী অত‍্যন্ত সুচিন্তিতভাবে চিত্রায়ন করেছিলেন তিনি। এই অমূল্য সংবিধানটি রাখা আছে দিল্লিতে ভারতের সংসদ ভবনের গ্রন্থাগারে বিশেষ একটি হিলিয়ামগ‍্যাস ভরা বাক্সে। এই মূল সংবিধানটিই পরবর্তীকালে ফোটো-লিথোগ্রাফ পদ্ধতিতে অত‍্যন্ত যত্ন করে অল্পকিছু কপি ছাপা হয়েছিল দেরাদুনের সার্ভে অফ ইন্ডিয়ার তত্ত্বাবধানে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *