ফিরে আয় অনির্বাণ…দেবাদিত্য দেবাংশী।

penmanship_aঅনির্বাণ জানিনা তোর কাছে এই চিঠি পৌঁছবে কিনা- তবুও লিখছি। কাল থেকে তোর কথা খুব মনে পড়ছে। তোর নিজেকে খুব বেশী অপরাধী মনে হচ্ছে। কাল শতরূপাও তোর গল্প বলছিল,ওকে জিজ্ঞেস করলাম তোর কোনও খবর রাখে কিনা? তোর ঠিকানা জানে? শতরুপা বলল তুই তো জানিস ওর কোনও ঠিকানা নেই—কোন দিনও ছিল না, ও সৃষ্টিছাড়া, বহেমিয়ান,পথভ্রষ্ট।

শতরূপার কথাগুলো শুনে মনে মনে খুব আনন্দ পেলাম। ভাবলাম সত্যিই, বহেমিয়ান হয়ে তুই ঠিক। জানিস আমি সেদিন যখন দেখলাম দেশের গরীব চাষি ন্যায্য ফসলের দাম না পেয়ে অনাহারে মড়ছে।আরেকদিকে নিতা আম্বানি x category নিরাপত্তা পাচ্ছে। তখন মনে হয় কেন তুই আর ফিরে আসছিস না। কেন মুক্তির স্লোগান তুই আর তুলিস না। যেদিন দেখলাম মিরপুরের চাষিটা লোণ পরিশোধ দিতে না পারার কারণে পুলিশ গ্রেফতার করে গারদে ঢোকাল, ঠিক ওই মুহূর্তেই বিজয় মাল্য একই অপরাধে বিনা বাধায় দেশ চেড়ে পালাল।পুলিশ ভগবান নিদ্রা গিয়েছেন!!! কিছুই হল না তখন মনে হয় তুই ঠিক ছিলি।

যখন দেখি চারিদিকে ডিজিটাল ইন্ডিয়ার স্লোগান উঠছে আর ফুটপাথের শিশুগুলো ভিক্ষা করছে- মনে নাড়া দেয়, তুই ঠিক ছিলি। ধর্ষিতা মহিলার পাশে সরকার না দাঁড়িয়ে উল্টে সাজানো ঘটনা বলে তখন কোনও যুক্তিই কাজ করে না- মন বলে তুই ঠিক ছিলি। টেট,এসএসসি না হওয়ায় আমার রাজ্যের বেকার যুবকরা পথভ্রষ্ট—বার বার মনে পড়ে, তুই ঠিক ছিলি।

মনে পড়ে,অনির্বাণ সেদিন আমি বলেছিলাম তোর রাস্তা ভুল, আমার রাস্তাই ঠিক। আজ মন থেকে চাইছি তুই ফিরে আয়। তুই ফিরে আয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *