এই সপ্তাহের বই- সন্তোষকুমার ঘোষ গল্পসমগ্র।

galpo-samagra-part-3-original-imaek2y68gjrnfp3

সন্তোষ কুমার ঘোষের পাণ্ডিত্য ও ,তার অনুভবী মনের পরিচয় বাংলার পাঠককুল বার বার পেয়েছেন তার লেখার মধ্যে দিয়ে। কিনু গোয়ালার গলি, শেষ নমস্কার  উপন্যাস চিরাচরিত আখ্যান থেকে আলাদা যেমন ছিল , সন্তোষ কুমার ঘোষ তার ছোটগল্পে অতি আধুনিক ছিলেন। বইটি পড়ার সময় ধরা পড়বে আজ থেকে পঞ্চাশ ষাট বছর আগের পুরনো দিন, পুরনো আমাদের শহর। মন্দার দিনে হাড় পাঁজর বের করা দাম্পত্য আর সমাজ। সেই সমাজ যে ভিতরে ভিতরে একটুও বদলায়নি সেটা লেখকের অনন্য চোখে ধরা পড়েছে। লেখনির মাধ্যমে পাঠকের সামনে তুলে ধরেছে।

১৯৫০ এর পরের সময়ের অর্থনৈতিক মন্দা , বেকারি , আর সেই সময়ের গ্যাসবাতি জ্বলা পুরনো কলকাতা আর নগরজীবনকে লেখক যে ভাবে তুলে ধরেছেন তার গল্পে, উপন্যাসে তা বাকি সব সমসাময়িক লেখকের থেকে আলাদা। সন্তোষকুমারের তুলনা স্বয়ং তিনি।

পড়া এবং শেখা। পড়তে পড়তে শেখা । অমোঘ শব্দ চয়ন, অমোঘ বাক্য নির্মাণ, চরিত্রের অন্তঃস্থলে প্রবেশ এসব মিলিয়ে সন্তোষ কুমারের গল্প । আশ্চর্য সব গল্প লিখেছেন সন্তোষ কুমার। বাস্তব থেকে পরবাস্তবে প্রবেশ করে সমাজের হাড়- পাঁজরা দেখিয়ে দিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *